ডাম্বুলায় মুষুলধারে বৃষ্টি, দ্বিতীয় ম্যাচ পরিত্যক্ত

1490716149


ডাম্বুলায় বাংলােদশ ও শ্রীলংকার দ্বিতীয় ওয়ান্ডে ম্যাচ বৃষ্টির কারণে ভেস্তে গেছে। ইনিংস বিরতিতেই বৃষ্টি নামে। হালকা বৃষ্টি দিয়ে শুরু হলেও পরে প্রচণ্ড বৃষ্টিতে সব পণ্ড হয়ে যায়।
এদিকে তাসকিন আহমেদের হ্যাটট্রিক সত্ত্বেও ডাম্বুলায় দ্বিতীয় ওডিআই ম্যাচে বড় স্কোর দাঁড় করিয়েছে শ্রীলঙ্কা। ৪৯.৫ ওভারে ৩১১ রানে অলআউট হয় লঙ্কানরা। ৫০ তম ওভারে ওডিআই ক্রিকেটে নিজের প্রথম হ্যাটট্রিক তুলে নেন বাংলাদেশি গতি তারকা।
শেষের ওভারের জন্য তাসকিনের হাতে বল তুলে দেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি। ৫০ তম ওভারের তৃতীয় বলে তাসকিনের বলে সৌম্য সরকারের হাতে ক্যাচ তুলে দেন ২৮ বলে ৩৯ রানের ক্যামিও ইনিংস খেলা গুনারত্নে। এর পরের বলে সুরঙ্গা লাকমাল মোস্তাফিজের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন। তাসকিন তখন হ্যাটট্রিক উইকেটের অপেক্ষায়। শেষ উইকেট হিসেবে মাঠে নামেন প্রদ্বীপ। তাসকিনের ফুল লেন্থের ইয়র্কার বলে স্টাম্প ছত্রখান হয়ে যায় প্রদ্বীপের।
আর এভাবে বাংলাদেশের পক্ষে পঞ্চম বোলার হিসেবে ওডিআইতে হ্যাটট্রিক উইকেট লাভের কৃতিত্ব দেখালেন তিনি।
এর আগে টসে জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় লঙ্কান অধিনায়ক থারাঙ্গা। ইনিংসের তৃতীয় ওভারে গুনাথিলাকা (৯) মাশরাফির শিকার হয়ে বিদায় নিলেও সে ধাক্কা সামাল দেন থারাঙ্গা ও মেন্ডিস। দুজনে ১১১ রানের জুটি গড়ে তোলেন। থারাঙ্গা (৬৫)  রান আউট হয়ে বিদায় নেন। এরপর ক্রিজে এসে দিনেশ চান্দিমাল ও মেন্ডিস অাবারো ৮৩ রানের জুটি গড়ে তুললে চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। দলীয় ২১২ রানে চন্দিামাল (২৪) বিদায় নেন। ক্রিজে আসেন অসলো গুনারত্নে। পরের ওভারেই নিজের অভিষেক শতক হাকিয়ে বিদায় নেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান কুশল মেন্ডিস (১০২)। এরপর মিলিন্দা সিরিওয়ারদানে ও গুনারত্নে ৫৫ রানের জুটি গড়ে তুললে বড় রান গড়ার আশা শুরু করে লঙ্কানরা।
কিন্তু শেষ ৫ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩১১ রানেই গুটিয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের জয়ের লক্ষ্য ছিল ৩১২ রান।

 

সিডর/মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭ ইংরেজি

সাংবাদিক শওকতের পিতার মৃত্যুতে শোক

shok-big20170225155026


বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ
বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক দৈনিক ভোরের দর্পণ ও দেশ সংযোগ পত্রিকার সাংবাদিক সৈয়দ শওকত হোসেন এর পিতার অবসর প্রাপ্ত কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা সৈয়দ মতিয়ার রহমান (৮০) গত ২৭মার্চ সোমবার দিবাগত রাত ৯টায় খুলনার শহীদ শেখ আবুনাসের বিশেষায়িত হাসপাতালে কিডনি বিশেষজ্ঞ ডাক্তার মুহম্মাদ আরশাদ-উল আজীম তত্বাবাধয়নে চিকিৎসাধিন থাকা অবস্তায় ইন্তেকাল করেন (ইন্না—-রাজিউন)। মৃত্যু কালে তিনি এক স্ত্রী,চার ছেলে,দুই মেয়েসহ অশংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। বুধবার বাদ যোহর রায়েন্দা বাসষ্টান্ডে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

ট্রলারাডুবি, তিন নারীর লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ প্রায় ১৫ যাত্রী,

somoy-trolar


বাগেরহাটে পানগুছি নদীতে যাত্রীবাহী ট্রলারাডুবি, তিন নারীর লাশ উদ্ধার

হাসান ফকির বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জ উপজেলায় পানগুছি নদীতে মঙ্গলবার সকাল এগারোটার দিকে যাত্রীবাহী ট্রলার ডুবে অন্তত তিন জন নিহত হয়েছেন। নিখোঁজ রয়েছেন আরও অন্তত ১৫ জন। স্থানীয়রা নদী থেকে প্রায় ৩৫ জনকে ভাসমান অবস্থায় উদ্ধার করেছেন। ট্রলঅরটি যাত্রী নিয়ে উপজেলার সোলমবাড়ি খেয়াঘাট থেকে পুরাতন থানাঘাটের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলো।

উদ্ধার হওয়া তিনটি মৃতদেহের প্রাথমিক পরিচয় পাওয়া গেছে। এরা হলেন, বিউটি বেগম (৩৮), পেয়ারা বেগম (৫০) ও সুফিয়া খাতুন (৭৫)। পুলিশ, দমকল বিভাগ ও কোস্টগার্ড সদস্যরা স্থানীয়দের সাথে নিয়ে নদীতে উদ্ধার কাজ চালাচ্ছে।

মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা রাশেদুল আলম তিন নারীর লাশ উদ্ধারের সংবাদ নিশ্চিত করে বলেন, উদ্ধারকৃতদের মধ্যে এক নারী ও এক শিশুকে মোরেলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং মোরেলগঞ্জ উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অফিসার রেবেকা বেগমকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ট্রলারডুবির কারণ বা নিহতদের সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি।

তবে ঘটনার প্রতক্ষদর্শীএকাধিক ব্যাক্তি জানান, সকাল সাড়ে দশটার দিকে অর্ধ শতাধিক যাত্রী নিয়ে ট্রলারটি সোলমবাড়ি খেয়াঘাট থেকেমোরেলগঞ্জ থানাঘাটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। প্রায় এগারোটার দিকে ট্রলারটি থানাঘাটের কাছাকাছি আসলে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি দ্রুতগতির নৌযানের ঢেউয়ে ট্রলারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে যায়।

বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ চন্দ্র রায় জানান, ট্রলারডুবির সুনির্দিষ্ট কারণ বিষয়ে এখনই বলা যাবে না। উদ্ধার তৎপরতা চলছে। আমরা খোঁজখবর নিচ্ছি। পরে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানানো যাবে।

 

সিডর/মঙ্গলবার, ২৮ মার্চ ২০১৭ ইংরেজি